১৭ই মে, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ, সোমবার

শ্রীমঙ্গলে দুই নারী দেহব্যবসায়ী আটক

আপডেট: ফেব্রুয়ারি ১৬, ২০২১

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি

শ্রীমঙ্গল শহরতলীর হাউজিং স্টেইট এলাকার আসমার বাসা হতে খদ্দেরসহ ২ নারী আটক করেন শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশ। ১৫ ফেব্রুয়ারী সোমবার রাতে পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হুমায়ুন কবির এর নেতৃত্বে এস আই আলমগীরসহ সঙ্গীয় অফিসার ও ফোর্স নিয়ে অভিযান চালিয়ে তাদের আটক করা হয়। এসময় নিজের বাসায় পতীতালয়ের মূল হোতা আসমা বেগম পুলিশের উপস্থিত টের পেয়ে পালিয়ে যায়।আটক কৃতরা হল হবিগঞ্জ জেলার বাহুবল উপজেলার স্নান ঘাট এলাকার রহমত আলীর ছেলে আবদুল ওয়াহিদ (২৭),উপজেলার লাল বাগ এলাকার শেকুল মিয়ার ছেলে মোহন মিয়া (২৩),মুন্সিগঞ্জ জেলার গজারিয়া উপজেলার আমির হোসেন দেওয়ানের মেয়ে আফসানা (৩৫) ও পিরোজপুর জেলার নাজিরপুর উপজেলার কলার ধনিয়া এলাকার আইয়ুব আলীর মেয়ে রাশিদা (২৬) কে অসামাজিক কার্যকলাপে লিপ্ত থাকা অবস্হায় হাতেনাতে আটক করা হয়।আটককৃত পতিতারা জানায় তাদেরকে পতিতা আছমা প্রলোভন দিয়ে এখানে এনে পতিতাবৃত্তির কাজে নিয়োগ করে। শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশের এমন অভিযানে অভিনন্দন জানিয়েছে সাধারণ মানুষ।পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) হুমায়ূন কবির জানান, শ্রীমঙ্গলের আইন শৃঙ্খলা বজায় রাখার পাশাপাশি মাদক, জুয়া ও অসামাজিক কার্যকলাপের বিরুদ্ধে এমন অভিযান অব্যাহত থাকবে। পতিতা রানী আসমা দীর্ঘ দিন থেকে শ্রীমঙ্গলে পতিতাবৃত্তি কাজে জড়িত রয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে পুলিশি অভিযান ভবিষ্যৎেও অব্যাহত থাকবে বলে জানান। এ ব্যাপারে তিনি শ্রীমঙ্গল থানা পুলিশকে তথ্য দিয়ে সহযোগিতার করার অনুরোধ করেন। তিনি হুশিয়ারী দিয়ে বলেন শ্রীমঙ্গলে কোন ধরনের অনৈতিক কাজে কেউ জড়িত থাকলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্হা নেয়া হবে বলে। কাউকেই ছাড় দেয়া হবে না।